রাজনীতি

ইসরায়েলি সেনার বিরুদ্ধে সাংবাদিক হত্যার অভিযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২২:৩৯, ১১ মে ২০২২

ইসরায়েলি সেনার বিরুদ্ধে সাংবাদিক হত্যার অভিযোগ

সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা অভিযোগ করেছে, দায়িত্ব পালনকালে তাদের এক সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েলি সেনারা। একই ঘটনায় তার এক সহকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। নিহত সাংবাদিকের নাম শিরিন আবু আকলেহ। গুলিবিদ্ধ ব্যক্তি হলেন তার প্রযোজক আলি আল-সামুদি। বুধবার ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে এ ঘটনা ঘটে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বুধবার পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এক অভিযান চালায়। ওইসময় সেখানকার খবর সংগ্রহ করার সময় মাথায় গুলিবিদ্ধ হলে শিরিন ঘটনাস্থলেই মারা যান। গুলিবিদ্ধ আলি আল-সামুদির অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল রয়েছে।

কী কারণে তাদের লক্ষ করে গুলি ছোঁড়া হয়েছে সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে আল-সামুদি জানান, ওই সময় ঘটনাস্থলে ফিলিস্তিনের নিরাপত্তা বাহিনীর কোনও সদস্য ছিলো না এবং ইসরায়েলের এক সেনাসদস্য তাদের ওপর গুলি চালিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী এক সাংবাদিক বলেছেন, ঘটনার সময় সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহ বুকে 'প্রেস' লেখা বুলেটপ্রুফ ভেস্ট ও হেলমেট পরা ছিলেন। হত্যার উদ্দেশ্যেই শিরিনের কানের পাশে গুলি করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত অন্য সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়া শিরিনকে তারা উদ্ধারের চেষ্টা করলে তাদের লক্ষ করেও গুলি ছোঁড়ে ইসরায়েলি সেনারা। এতে স্পষ্টই বোঝা যায়, শিরিনকে পরিকল্পিতভাবেই হত্যা করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিকরা আরও জানান, ঘটনার কিছু আগেই শিরিন আবু আকলেহসহ অন্য সাংবাদিকরা ইসরায়েলি বাহিনীর সদস্যদের কাছে নিজেদের পরিচয় দিয়েছিলেন।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী উদ্দেশ্যমূলকভাবে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে দাবি করে এ ঘটনার জন্য ইসরায়েলকে দোষী সাব্যস্ত করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে এর বিচারও দাবি করেছে আল জাজিরা। তবে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনী সূত্র দাবি করেছে, জঙ্গি কার্যক্রমে জড়িত সন্দেহভাজনদের গ্রেফতারে সেখানে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছিলো। ওই সময় ইসরায়েলি বাহিনীর পাশাপাশি সন্দেহভাজন ফিলিস্তিনিরাও গুলি ছুঁড়ছিলো দাবি করে সূত্রটি জানিয়েছে, ইসরায়েলিদের গুলিতে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সাংবাদিক হতাহতের এ ঘটনায় ফিলিস্তিনি অস্ত্রধারীদের দায়ী করে বুধবার বিবৃতি দিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট। তিনি বলেন, ‘অভিযান চলাকালে অস্ত্রধারী ফিলিস্তিনিদের এলোপাথারি গুলিতে সাংবাদিকের দুঃখজনক মৃত্যু হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। তাছাড়া অভিযানের সময় ইসরায়েলি কোনও সেনা আহত হয়নি। এ থেকে এ সম্ভাবনাই জোরদার হয় যে ফিলিস্তিনি জঙ্গিদের গুলিতেই ওই সাংবাদিক নিহত হয়েছেন।’

তাদের এ বক্তব্যের পক্ষে প্রমাণ হিসেবে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে অভিযান চলাকালীন একটি ভিডিওচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। তবে ওই ভিডিওচিত্রে দেখানো ঘটনার সঙ্গে শিরিন আবু আকলেহর মৃত্যুর ঘটনার কোনও সম্পর্ক রয়েছে কি না, তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

৫১ বছর বয়সী শিরিন আবু আকলেহর জন্ম জেরুজালেমের একটি খ্রিস্টান পরিবারে। আল জাজিরায় যোগ দেওয়ার আগে তিনি আরও কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমে সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি স্থাপত্য বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। পরে তিনি সাংবাদিকতার ওপর ডিগ্রি নেন।

উল্লেখ্য, ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ করে বেশ কিছুদিন ধরেই ফিলিস্তিনিরা হামলা চালিয়ে আসছে, যার ফলে গত কয়েকদিনে ১৮ জন নিহতের ঘটনা ঘটে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমানে ইসরায়েলি বাহিনী পশ্চিম তীরে তাদের অভিযানের আওতা বাড়িয়েছে।

সূত্র : সিএনএন।