রাজনীতি

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীকে গুলি করে `হত্যাকাণ্ড` ঠেকালেন এক নারী

প্রকাশিত: ১৬:৩৮, ২৮ মে ২০২২;  আপডেট: ১৬:৪০, ২৮ মে ২০২২

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীকে গুলি করে `হত্যাকাণ্ড` ঠেকালেন এক নারী

অস্ত্র আইন নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত দেশটিতে নিরাপত্তা ইস্যুতে বিতর্ক বেড়েছে।

জন্মদিনের পার্টি চলাকালে সেখানে হঠাৎ করেই উপস্থিত হয় এক বন্দুকধারী। সেখানে অবস্থানরত প্রায় ৪০ জন ব্যক্তিকে লক্ষ করে গুলির চেষ্টা করলে সেখানে থাকা এক নারী তাৎক্ষণিকভাবে নিজের আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ওই বন্দুকধারীর উদ্দেশে গুলি ছোঁড়েন। গুরুতর আহত ওই বন্দুকধারী পরে মারা যায়। কিন্তু প্রাণে বেঁচে গেছেন অন্তত ৪০ জন ব্যক্তি। গত বুধবার বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিম ভার্জিনিয়ায় এ ঘটনা ঘটে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা বিবিসি আজ শনিবার এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে।

গত মঙ্গলবার টেক্সাসের একটি স্কুলে এক বন্দুকধারীর হামলায় ১৯ জন শিশুসহ ২১ জন মারা যান। এরপর থেকেই অস্ত্র আইন নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত দেশটিতে নিরাপত্তা ইস্যুতে বিতর্ক বেড়েছে। এর মধ্যেই নতুন করে আবার পশ্চিম ভার্জিনিয়ায় এমন ঘটনা ঘটলো।

স্থানীয় পুলিশের মুখপাত্র টনি হেজলেট জানিয়েছেন, ৩৭ বছর বয়সী ওই বন্দুকধারীর নাম ডেনিস বাটলার। সে একজন দাগী অপরাধী। ঘটনার দিন বিকেলে সে ওই এলাকার সড়কে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলো। শিশুরা সেখানে খেলাধুলা করছে বলে তখন তাকে সতর্ক করা হয়। এর কিছুক্ষণ পর সে একটি সেমি-অটোমেটিক বন্দুক নিয়ে ফিরে আসে। ওই সময় সেখানে জন্মদিনের একটি পার্টি চলছিলো। সেখানে জড়ো হওয়া অতিথিদের লক্ষ করে নিজের গাড়ির ভেতর থেকে গুলি ছোঁড়ে বাটলার। সেখানে উপস্থিত এক নারী মুহূর্তের মধ্যেই তার কাছে থাকা অস্ত্র দিয়ে তখন বাটলারকে গুলি করে আহত করে। কয়েকটি গুলি গায়ে বিদ্ধ হলে সে গুরুতর আহত হয়। কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

পুলিশ ওই নারীর পরিচয় প্রকাশ করেনি। টনি হেজলেট বলেন, তিনি (ওই নারী) আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কোনও সদস্য নন। তিনি সাধারণ একজন নাগরিক এবং স্থানীয় বাসিন্দা। তার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ার কারণে একটি 'সম্ভাব্য গণহত্যা' ঠেকানো গেছে এবং অনেকগুলো মানুষের জীবন বেঁচে গেছে। তিনি নিজের লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেছেন। বন্দুকধারী আক্রমণ শুরু করলে নিজের জীবন বাঁচাতে ভয়ে পালিয়ে না গিয়ে বরং তিনি সাহসের সঙ্গে ওই পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছেন এবং তা ঠেকানোর চেষ্টা করেছেন। তার হস্তক্ষেপের কারণেই অনেকগুলো মানুষের জীবন বেঁচে গেছে। বন্দুকধারীকে গুলি করার পর তিনি ঘটনাস্থলেই অবস্থান করছিলেন এবং ঘটনার তদন্তে সহযোগিতা করছেন। তাই তার বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ আনা হবে না।

হেজলেট জানিয়েছেন, বাটলারের কাছে ওই আগ্নেয়াস্ত্র কীভাবে এলো তা এখনও জানা যায়নি। তবে দাগী অপরাধী হওয়ায় আইনগতভাবে তার কাছে কোনও আগ্নেয়াস্ত্র থাকার সুযোগ নেই।